রবিবার, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৯:৩২ অপরাহ্ন
নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ::
সিটিজেন নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকমের জন্য প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। যারা আগ্রহী আমাদের ই-মেইলে সিভি পাঠান
সংবাদ শিরোনাম ::

ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে মিলিয়নিয়ার হলেন মৌলভীবাজারের গৃহিণী

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ০ বার পঠিত

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক: গৃহিণী গয়না বেগম। থাকেন মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলার চান্দবাগে। তিন মেয়ে ও এক ছেলে নিয়ে মাটির ঘরে বেশ কষ্টে দিন কাটে তাদের। ভাগ্য পরিবর্তনের আশায় এ বছর স্বামীকে কাতার পাঠিয়েছেন। সম্প্রতি ফ্রিজ কেনার জন্য তার স্বামী কিছু টাকা পাঠান। সেই টাকায় ওয়ালটনের ফ্রিজ কেনেন গয়না। আর তাতেই খুলে যায় তার ভাগ্য। ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে পান ১০ লাখ টাকা। এই টাকায় সন্তানদের ভবিষ্যৎ গড়ার পাশাপাশি মাটির ঘর ভেঙে করবেন নতুন পাকা ঘর। ওয়ালটনের এই স্মৃতি ধরে রাখতে ওই বাড়ির নামফলকে ‘সৌজন্যে ওয়ালটন’ লিখে রাখবেন গয়না।

ওয়ালটনের ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন ৭’ এ দেওয়া ‘মিলিয়নিয়ার ও অসংখ্য লাখপতি’ শীর্ষক সুবিধার আওতায় ফ্রিজ কিনে ১০ লাখ টাকা পান তিনি। তার আগে ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে ১০ লাখ টাকা করে পেয়েছেন আরও অনেক ক্রেতা।

সম্প্রতি মৌলভীবাজারে ওয়ালটন প্লাজা শ্রীমঙ্গল রোড শাখায় গয়না বেগমের হাতে আনুষ্ঠানিকভাবে ১০ লাখ টাকার চেক তুলে দেওয়া হয়। সে সময় উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় ব্যবসায়ী ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মেজবাহুর রহমান, ওয়ালটনের মৌলভীবাজার জোনের এরিয়া ম্যানেজার সুমন রয় চৌধুরী, প্লাজা ম্যানেজার হাসিবুল হাসান প্রমুখ।

উল্লেখ্য, অনলাইনে দ্রুত সর্বোত্তম বিক্রয়োত্তর সেবা দিতে সারা দেশে ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন-৭ চালাচ্ছে ওয়ালটন। এর আওতায় ওয়ালটন ফ্রিজ, ওয়াশিং মেশিন এবং মাইক্রোওয়েভ ওভেন কিনে ক্রেতারা পেতে পারেন ১০ লাখ টাকা। রয়েছে লাখপতি হওয়ার সুযোগসহ কোটি কোটি টাকার নিশ্চিত ক্যাশ ভাউচার। ইতিমধ্যেই ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে মিলিয়নিয়ার ও লাখপতি হয়েছে অসংখ্য ক্রেতা।

টাকা হস্তান্তর অনুষ্ঠানে গয়না বেগম জানান, তার বাড়ি রাজনগর উপজেলার চান্দবাগে। তিন মেয়ে ও এক ছেলে নিয়ে বেশ কষ্টে দিন কাটে তাদের। সন্তানদের ভবিষ্যৎ গড়ার আশায় স্বামীকে এ বছর কাতার পাঠিয়েছেন। সম্প্রতি ফ্রিজ কেনার জন্য তার স্বামী কিছু টাকা পাঠান। শ্রীমঙ্গল রোডের ওয়ালটন প্লাজা থেকে মাত্র ২০ হাজার ৭০০ টাকায় একটি ফ্রিজ কেনেন তিনি। এরপর প্রতিষ্ঠানটির ডিজিটাল ক্যাম্পেইনের আওতায় ১০ লাখ টাকা পাওয়ার মেসেজ যায় তার মোবাইলে। যা দেখে আনন্দে কেঁদে ফেলেন গয়না বেগম।

তিনি বলেন, ভাগ্য পরিবর্তনের আশায় স্বামীকে বিদেশ পাঠিয়েছি। কিন্তু দেশের একটি কোম্পানি আমাদের জন্য সৌভাগ্য নিয়ে এলো। ওয়ালটন থেকে পাওয়া এই টাকায় সন্তানদের ভবিষ্যৎ গড়ার পাশাপাশি মাটির ঘর ভেঙে নতুন দালান ঘর তৈরি করবো। ওই বাড়ির নামফলকে ‘সৌজন্যে ওয়ালটন’ লিখে রাখবো।
ওয়ালটন ফ্রিজের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আনিসুর রহমান মল্লিক জানান, ডিজিটাল রেজিস্ট্রেশন পদ্ধতিতে ক্রেতার নাম, মোবাইল ফোন নম্বর এবং বিক্রি করা পণ্যের মডেল নম্বরসহ বিস্তারিত তথ্য ওয়ালটনের সার্ভারে সংরক্ষণ করা হচ্ছে। ফলে, ওয়ারেন্টি কার্ড হারিয়ে গেলেও দেশের যেকোনো ওয়ালটন সার্ভিস সেন্টার থেকে দ্রুত কাঙ্ক্ষিত সেবা পাচ্ছেন গ্রাহক। সার্ভিস সেন্টারের প্রতিনিধিরাও গ্রাহকের ফিডব্যাক জানতে পারছেন। আর এ কার্যক্রমে ক্রেতাদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণে উদ্বুদ্ধ করতে মিলিয়নিয়ারসহ নিশ্চিত ক্যাশ ভাউচারের সুযোগ দেওয়া হচ্ছে।

কর্তৃপক্ষ জানায়, দেশীয় ব্র্যান্ড হিসেবে ক্রেতাদের হাতে উন্নত মানের পণ্য তুলে দেওয়ার পাশাপাশি সর্বোচ্চ ক্রেতা সুবিধা দিতে বদ্ধ পরিকর ওয়ালটন। তাই ডিজিটাল ক্যাম্পেইনে বিভিন্ন সুবিধার পাশাপাশি ফ্রিজে ১ বছরের রিপ্লেসমেন্টসহ কম্প্রেসরে ১২ বছরের গ্যারান্টি, ৫ বছরের ফ্রি বিক্রয়োত্তর সেবা, দেশব্যাপী বিস্তৃত ৭৪টি সার্ভিস সেন্টার থেকে দ্রুত বিক্রয়োত্তর সেবা পাওয়ার নিশ্চয়তা এবং সর্বোচ্চ ৩৬ মাসের সহজ কিস্তি সুবিধা দিচ্ছে ওয়ালটন।

ওয়ালটন ফ্রিজের প্রোডাক্ট ম্যানেজার শহীদুজ্জামান রানা জানান, স্থানীয় বাজারে তাদের রয়েছে শতাধিক মডেলের ফ্রস্ট, নন-ফ্রস্ট, ডিপ ফ্রিজ ও বেভারেজ কুলার। দাম মাত্র ১০,৯৯০ টাকা থেকে ৮০,৯০০ টাকার মধ্যে। রয়েছে চোখ ধাঁধানো আকর্ষণীয় ডিজাইনের গ্লাস ডোর এবং ব্যাপক বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী ইনভার্টার প্রযুক্তির বিএসটিআই’র ‘ফাইভ স্টার’ এনার্জি রেটিংপ্রাপ্ত ডিজিটাল ডিসপ্লে সমৃদ্ধ সাশ্রয়ী মূল্যের ফ্রিজ। ওয়ালটন ফ্রিজে ব্যবহৃত হচ্ছে ডিইসিএস টেকনোলজি সমৃদ্ধ থ্যালেটমুক্ত গ্যাসকেট, হানড্রেড পার্সেন্ট কপার কনডেনসার, ওয়াইড ভোল্টেজ ডিজাইন। ফলে এসব ফ্রিজে ভোল্টেজ স্ট্যাবিলাইজার ব্যবহারের প্রয়োজন নেই। নগদ মূল্যের পাশাপাশি বিশ্বমানের ওয়ালটন ফ্রিজ কিস্তিতে কেনার সুযোগ আছে।

সম্প্রতি কুল প্যাকসহ ডিপ ফ্রিজ বাজারে ছেড়েছে ওয়ালটন। বাংলাদেশে এই প্রথম এ প্রযুক্তির ফ্রিজার বাজারে এলো। কোরবানির ঈদ উপলক্ষে করোনাভাইরাস দুর্যোগের মধ্যে ক্রেতাদের জন্য এই বিশেষ ফিচার যুক্ত করেছে ওয়ালটন।

জানা গেছে, আন্তর্জাতিক মান যাচাইকারি সংস্থা নাসদাত ইউনিভার্সাল টেস্টিং ল্যাব থেকে মান নিশ্চিত হয়ে ওয়ালটনের প্রতিটি ফ্রিজ বাজারে ছাড়া হচ্ছে। ওয়ালটন ফ্রিজের রয়েছে বিএসটিআইয়ের ফাইভ স্টার এনার্জি এফিশিয়েন্সি রেটিং। ফ্রিজ উৎপাদন ও রপ্তানিতে ওয়ালটন অর্জন করেছে আইএসও, ওএইচএসএএস, ইএমসি, সিবি, আরওএইচএস, এসএএসও, ইএসএমএ, ইসিএইচএ, জি-মার্ক, ই-মার্ক ইত্যাদি সার্টিফিকেট। আন্তর্জাতিকমানের ওয়ালটন ফ্রিজ রপ্তানি হচ্ছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে।

ওয়ালটন হোম অ্যাপ্লায়েন্সের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা প্রকৌশলী আল ইমরান জানান, বর্তমানে বাজারে রয়েছে ওয়ালটনের ১৩ মডেলের সেমি অটোমেটিক এবং অটোমেটিক টপ এবং ফ্রন্ট লোডিং ওয়াশিং মেশিন। ব্যাপক বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী এসব মেশিনের দাম ৬,৯০০ টাকা থেকে ৪৫,৫০০ টাকার মধ্যে। ওয়ালটন ওয়াশিং মেশিনে গ্রাহকরা সর্বোচ্চ ৭ বছর পর্যন্ত মোটর ওয়ারেন্টি পাচ্ছেন। এছাড়া ওয়ালটনের রয়েছে ৯ মডেলের মাইক্রোওয়েভ ওভেন। দাম ৬,৯৯০ থেকে ১৯,০০০ টাকার মধ্যে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved  2019 CitizenNews24
Theme Developed BY ThemesBazar.Com