বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১২:০৬ পূর্বাহ্ন
নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ::
সিটিজেন নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকমের জন্য প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। যারা আগ্রহী আমাদের ই-মেইলে সিভি পাঠান

যে খাবারগুলো খেলে পর্যাপ্ত ঘুম হয়

  • আপডেট টাইম : শনিবার, ৪ মে, ২০১৯
  • ৮৪ বার পঠিত

 

অনলাইন ডেস্ক, সিটিজেন নিউজ: এমন অনেকবারই হয়েছে যে দিনের মধ্যভাগে আপনার মনে হচ্ছে যে আপনি ঘুমে ঢলে পড়ে যাবেন। কখনো কখনো এমন অবস্থা হয় যে ঘুমিয়ে পড়া ছাড়া আর কোনো উপায় থাকে না। অনিদ্রা এবং পর্যাপ্ত ঘুমের অভাব, এই ব্যাপারগুলি নিয়ে কিন্তু সেরকম ভাবে এখনো পর্যন্ত কেউ মাথা ঘামায়নি। এমনকি না ঘুমিয়ে অন্য কাজ করাকে বেশ বাহবাই দেওয়া হয়।

কিন্তু বিশেষজ্ঞদের মতে দিনে ৮ ঘন্টার কম ঘুম আমাদের শরীরের বিভিন্ন কার্যকলাপের ওপরে খারাপ প্রভাব ফেলতে পারে। শরীরের ক্লান্তি এবং অবসাদ দূর করার জন্য ন্যূনতম ৮ ঘন্টার ঘুম দরকার। অনেকেই জানেন না যে ঘুম আমাদের হার্ট এবং ধমনীর নিরাময় এবং মেরামতির কাজ করে। অপর্যাপ্ত ঘুমের কারণে দেখা দেয় খিটখিটে ভাব, মনোসংযোগের অভাব, মস্তিষ্কের কর্মক্ষমতা হ্রাস, ওজন বৃদ্ধি এবং সবথেকে খারাপ ব্যাপার হলো এটি বিষন্নতার একটি বড় কারণ।

অনিদ্রা মাত্রা ছাড়িয়ে গেলে আমাদের উচিত তাড়াতাড়ি ডাক্তারের পরামর্শ নেওয়া কিন্তু তার আগে ঘরোয়া পদ্ধতিতেও এর মোকাবিলা আমরা করতে পারি। অনেক খাবার আছে যা পর্যাপ্ত ঘুমের ক্ষেত্রে সাহায্য করে। এরকম সাতটি খাবার হলো-

কলা

ভালো ঘুমের জন্য ব্যাপকভাবে কাজ করে কলা। কলাতে থাকা ম্যাগনেসিয়াম এবং পটাশিয়াম পেশী এবং স্নায়ুকে রিল্যাক্স করতে সাহায্য করে। এছাড়াও এতে থাকা কার্বোহাইড্রেট আপনাকে প্রাকৃতিক উপায়ে ঘুম পাড়িয়ে দেবে।

গরম দুধ

আয়ুর্বেদ বলে একগ্লাস গরম দুধ ভালো ঘুমের জন্য উপকারী। বিজ্ঞানও এই মতকে সমর্থন করে। দুধে থাকে ট্রিপ্টোফ্যান নামক এমিনো এসিড যা রূপান্তরিত হয় সেরোটোনিনে। সেরোটোনিন মস্তিষ্কে আরামদায়ক অনুভূতির সৃষ্টি করে যা ঘুমের জন্য ভালো। দুধের সঙ্গে সামান্য এক চিমটি জায়ফল গুঁড়ো, এক চিমটি এলাচের গুঁড়ো এবং গুঁড়ো করা কাজু বাদাম মিশিয়ে নিলে শুধু দুধেরই স্বাদ বাড়ে না, এগুলি ভালো ঘুমেও সাহায্য করে। এমনকি রসুনযুক্ত দুধও ঘুমের জন্য খাওয়া যেতে পারে। এক কাপ দুধের সঙ্গে ১/৪ কাপ পানি এবং ১ কোয়া রসুন মিশিয়ে ফুটিয়ে নিন এবং গরম গরম খেয়ে ফেলুন।

চেরি

চেরিতে থাকে মেলাটোনিন। এটি মস্তিষ্কের পিনিয়াল গ্রন্থি থেকে তৈরি হয় এবং আমাদের ঘুম এবং জাগরণের অবর্তনটি নিয়ন্ত্রণ করে। ‘দ্য কমপ্লিট বুক অফ হোম রেমেডিস’ বই অনুসারে, চেরি মানসিক ক্লান্তি এবং স্ট্রেস কমাতে সাহায্য করে। দিনে ১০১২টি চেরি খেলে ভালো ঘুম হবে।

কাঠ বাদাম বা আমন্ড

মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে আমন্ড গাঢ় ঘুমেও সাহায্য করে। দুধের মতোই এতে থাকে ট্রিপ্টোফ্যান যা মস্তিষ্কে এবং স্নায়ুতে আরামদায়ক অনুভূতি এনে দেয়। অন্যদিকে ম্যাগনেসিয়াম আমাদের হার্টের ছন্দকে ঠিক রাখে।

ডার্ক চকোলেট

হ্যাঁ আপনি ঠিকই পড়েছেন। ডার্ক চকলেট সেরা নিদ্রা উদ্রেককারী খাবারগুলোর মধ্যে একটি। সেরোটোনিন থাকায় এটি মস্তিষ্ককে এবং মনকে শান্ত করে। তার মানে এই নয় যে আপনি যত খুশি ডার্ক চকলেটই খাবেন। সবসময় মনে রাখা উচিত পরিমিত আহার সুস্বাস্থ্যের লক্ষণ।

চ্যামোমিল চা

এটি খুবই সুগন্ধুযুক্ত, উদ্দীপক এবং সতেজতা প্রদানকারী পানীয়। স্নায়ুকে অবশ করে এটি ভালো নিদ্রার উদ্রেক করে। আয়ুর্বেদের মতে এটি হালকা অবশকারী পদার্থ হিসাবে কাজ করে। এটিতে থাকা ফ্ল্যাভনয়েড, এপিজেনিন যেটি মস্তিষ্কের বেনজোডায়াজেপিন রিসেপ্টরের সঙ্গে যুক্ত হয়ে নিদ্রার উদ্রেক করে।

ওটস

ওটস খেলে কেবল পেটই ভরে না, এটি ওজন হ্রাস করতে সাহায্য করে এবং এটি সেরা নিদ্রা উদ্রেক খাবারগুলির মধ্যে একটি। ওটসের সঙ্গে যোগ করুন অল্প বেরি, মধু এবং খেয়ে নিশ্চিন্তে ঘুমান।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved  2019 CitizenNews24
Theme Developed BY ThemesBazar.Com