বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৮:৪৫ পূর্বাহ্ন
নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ::
সিটিজেন নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকমের জন্য প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। যারা আগ্রহী আমাদের ই-মেইলে সিভি পাঠান

৭ গোলের ম্যাচে হার দেখল মেসির মায়ামি

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ৩০ জানুয়ারী, ২০২৪
  • ৯ বার পঠিত
RIYADH, SAUDI ARABIA - JANUARY 29: Lionel Messi and Luis Suarez of Inter Miami during the Riyadh Season Cup match between Al Hilal and Inter Miami at Kingdom Arena on January 29, 2024 in Riyadh, Saudi Arabia. (Photo by Yasser Bakhsh/Getty Images)

প্রাক মৌসুম প্রস্তুতি মোটেও ভালো হচ্ছে না মেজর লিগ সকারের (এমএলএস) ক্লাব ইন্টার মায়ামির। এল সালভাদরের বিপক্ষে ড্রয়ের পর স্বদেশী ক্লাব এফসি ডালাসের কাছে হার। এবার সৌদিতে পা রেখেই ৭ গোলের রোমাঞ্চ ছড়ানো ম্যাচে হারের তেতো স্বাদ পেল লিওনেল মেসির দলটি।

সোমবার দিবাগত রাতে রিয়াদের কিংডম অ্যারেনায় মুখোমুখি হয়ে স্বাগতিক আল হিলাল ও ইন্টার মায়ামি। তবে রিয়াদ সিজন কাপের ম্যাচটিতে ৪-৩ ব্যবধানে হেরেছে টাটা মার্তিনোর শিষ্যরা। মায়ামির হয়ে গোল করেন সুয়ারেজ, মেসি ও ডেভিড রুইজ। আল হিলালের হয়ে গোল করেছেন আলেক্সান্ডার মিত্রোভিচ, আব্দুল্লাহ আল হামদান, মিকায়েল ও ম্যালকম।

এদিন আল হিলালের জার্সিতে মাঠে নেইমার উপস্থিত থাকলে বার্সেলোনার সেই ‘ত্রিরত্ন’কে অন্তত আনো একবার দেখতে পেত ফুটবল বিশ্ব। কিন্তু চোটের কারণে মাঠের বাইরে আল হিলাল তারকা। তাই তো বার্সেলোনার সাবেক দুই সতীর্থ লিওনেল মেসি ও লুইস সুয়ারেজের সঙ্গে তার পুনর্মিলনীটা হতে গিয়েও হলো না। তবে এদিন কিংডম অ্যারেনায় খেলা দেখতে আসা দর্শকদের পয়সা উশুল হয়েছে। ৭ গোলের রোমাঞ্চ তো আর প্রতিদিন দেখা যায় না।

ম্যাচের প্রথমার্ধেই ৩-১ ব্যবধানে ম্যাচে লিড নেয় আল হিলাল। খেলা শুরুর দশম মিনিটে সার্বিয়ার মিলিনকোভিচের অ্যাসিস্ট থেকে দলের হয়ে প্রথম গোল করেন আলেক্সান্ডার মিত্রোভিচ। প্রথম গোল খাওয়ার তিন মিনিটের মাথায় দ্বিতীয় গোল খেয়ে বসে মায়ামি। এবার গোলদাতা আব্দুল্লাহ আল হামদান।

কিংডম অ্যারেনায় ২ গোলে পিছিয়ে পড়ে গোল শোধে মরিয়া হয়ে উঠে মায়ামি। ম্যাচের ৩৪তম মিনিটে দলীয় আক্রমণ থেকে বল পেয়ে কোনাকুনি শটে গোল করেন উরুগুয়ে তারকা লুইস সুয়ারেজ। ভিএআরের সাহায্য নিয়ে সেটিকে গোল ঘোষণা করেন রেফারি। মায়ামির হয়ে এটি সুয়ারেজের প্রথম গোল, প্রাক মৌসুম সফরে ক্লাবটির প্রথম গোলও।

তবে হতাশা নিয়েই বিরতিতে যেতে হয়েছে মায়ামিকে। কারণ ম্যাচের ৪৪ মিনিটে আল হিলালের আব্দুল্লাহ আল হামদানের অ্যাসিস্ট থেকে মিশেল দেলগাদোর করা গোলে স্কোর লাইন দাঁড়ায় ৩-১।

বিরতির পর পেনাল্টি থেকে গোল করেন লিওনেল মেসি। ম্যাচের ৫৪তম মিনিটে ডেভিড রুইজকে ফাউল করলে পেনাল্টি পায় মায়ামি। পরের মিনিটেই রুইজের কল্যাণে ম্যাচে সমতা ফেরায় ইন্টার মায়ামি। মায়ামির তিন গোলেই গোলেই জড়িয়ে ছিলেন এলএমটেন। কিন্তু ম্যাচ জেতা হয়নি তার দলের।

ম্যাচ সমতায় ফেরার পর দুই দলই যেন খেলায় ঢিল দিয়েছিল। ম্যাচটি যখন রোমাঞ্চকর ড্রয়ের দিকে এগুচ্ছিল তখনই মায়ামির কফিনে শেষ পেরেক ঠুকেন মেসি-আলবা-বুসকেটসের সাবেক বার্সা সতীর্থ ম্যালকম। ম্যাচের ৮৮তম মিনিটে ইয়াসির আল শাহরানির ক্রস থেকে হেডে গোলটি করেন এই ব্রাজিলিয়ান।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved  2019 CitizenNews24
Theme Developed BY ThemesBazar.Com